• রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩
Bengal Links

সম্প্রীতি নষ্টের অভিযোগে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের শুভেন্দুর বিরুদ্ধে

বেঙ্গল লিংকস | নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: অক্টোবর ৩১, ২০২২, ১১:২৯ এএম


সম্প্রীতি নষ্টের অভিযোগে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের শুভেন্দুর বিরুদ্ধে

ফের সম্প্রীতি নষ্টের অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে। এই মর্মে নন্দকুমার থানায় জামিন অযোগ্য ধারায় অভিযোগ দায়ের করেছে এক আইনজীবী বলে খবর।

সূত্রের খবর, গত ২৪ অক্টোবর নন্দকুমারের কামারদা এলাকায় এক কালীপুজো উদ্বোধনে যান শুভেন্দু অধিকারী। সেই পুজো মঞ্চে ভাষণ রাখতে গিয়ে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা ‘হিন্দুদের শেষ আশ্রয়স্থল হল ভারতবর্ষ’ -এর মতো একাধিক মন্তব্য পেশ করেন। যার জেরে নন্দকুমার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন আইনজীবী আবু সোহেল। অভিযোগকারী দাবি, রাজ্যের বিরোধী দলনেতার এমথ মন্তব্য উস্কানিমূলক। ভারতবর্ষ সম্প্রীতির দেশ। যেখানে সর্ব ধর্মের মানুষ একসাথে মিলে মিশে বসবাস করে। বিরোধী দলনেতার এমন মন্তব্যের ফলে সেই সম্প্রীতি নষ্ট হয়েছে। রবিবার এই মর্মে অভিযোগ দায়ের করা হয় এবং পুলিশের তরফে এই অভিযোগ রুজু করা হয়েছে বলেই খবর।

শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন, “হিন্দুদের শেষ আশ্রয়স্থল হল ভারতবর্ষ। এটা রাজনীতির কথা নয়, ভোটের কথা নয়, হিন্দুদের কথা। তাই এখানে যদি হিন্দুত্বকে আপনারা রক্ষা করতে না পারেন তাহলে যাওয়ার আর কোনও রাস্তা নেই।” তিনি আরও বলেছিলেন, “ইসলামিক ফ্রন্ট হিসাবে একদিকে বাংলাদেশ, একদিকে পাকিস্তান, আর একদিকে রয়েছে বঙ্গোপসাগর। কয়েকদিন আগেই আমাদের হিন্দুদের মারধর করা হয়েছে মোমিনপুরে। কলকাতার খিদিরপুরে লক্ষ্মীপুজোর দিনও অশান্তি বাঁধিয়ে ১০০ ঘর জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে। ডায়মন্ড হারবারে একজন মৃৎশিল্পী ২০টা ঠাকুর তৈরি করেছিলেন। তার মধ্যে ১৬টা ঠাকুর ভাঙচুর করেছে।”

এরপরই শুভেন্দু এমন মন্তব্যের জেরে গত ২৭ অক্টোবর রাজ্য পুলিশের ডিজি এবং পুলিশ সুপারের কাছে ই-মেলে অভিযোগ জানান সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী আবু সোহেল। সেই মামলার ভিত্তিতেই রবিবার নন্দকুমার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। তবে ওই অভিযোগের পাল্টা জবাব দিয়ে শুভেন্দু অধিকারী বিবেকানন্দের আদর্শকে তুলে এনেছেন। তিনি এদিন জানান, “আমি বিবেকানন্দের আদর্শ নিয়ে চলি। আমি ওই ভাষণের অডিয়ো বারেবারে শুনেছি, আপনারাও শুনুন। আমি কোনও সম্প্রদায়ের নাম নিইনি বা কাউকে খাটো করতেও যাইনি। যত পারে মামলা করুক। আমার কিছু আসে যায় না।”

আইন-কানুন থেকে আরও খবর