• রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩
Bengal Links

জেনে নিন বিনিয়োগ বিকল্প সম্পর্কিত বিষয়গুলি

বেঙ্গল লিংকস | সোনালী ঘোষ

প্রকাশিত: আগস্ট ৯, ২০২২, ০৮:০৩ পিএম


জেনে নিন বিনিয়োগ বিকল্প সম্পর্কিত বিষয়গুলি

ভবিষ্যৎকে সুরক্ষিত ও নিরাপদ করার জন্য বিনিয়োগ ভবিষ্যতের আর্থিক লক্ষ্য পূরণ করে। তাই নিজের জন্য বিনিয়োগের কোন বিকল্পটা ভাল, সেই বিষয়টা সবার আগে বুঝতে হবে। প্রত্যেকেই ভাল বিনিয়োগ বিকল্প এবং আর্থিক রিটার্নের সন্ধানে থাকে। সঠিক পদক্ষেপ পরিকল্পনা নেওয়া এবং দীর্ঘমেয়াদী চিন্তার বিষয়।  বিনিয়োগ খুব গুরুত্বপূর্ণ কারণ আজকের বিশ্বে অর্থ উপার্জনই শুধু যথেষ্ট নয়। আমাদের দেশে বিভিন্ন ধরনের বিনিয়োগের বিকল্প পাওয়া যায়। বিনিয়োগের বিভিন্ন মাধ্যমের কথাও আমরা জেনে এসেছি। তাই বিনিয়োগের কোন বিকল্পটা নিজের জন্য ভাল, সেই বিষয়টা সবার আগে বুঝতে হবে। কারণ সব বিনিয়োগ সব বিনিয়োগকারীর জন্য উপযুক্ত নয়। এগুলির প্রত্যেকটি স্তরে বিভিন্ন ঝুঁকি রয়েছে। তাই বিনিয়োগকারীদের এমন ধরনের বিনিয়োগ বেছে নিতে হবে যা তাদের আর্থিক পরিকল্পনা এবং লক্ষ্যগুলির জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত মনে হবে। বিনিয়োগকে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে ভাগ করে। প্রত্যক্ষ বিনিয়োগের ক্ষেত্রে মার্কেট এবং অর্থনৈতিক ধারার বিষয়গুলি পর্যালোচনা করে গতিশীল ভাবে সম্পদ পরিবর্তন করে যেতে পারে। সবথেকে বড়কথা প্রত্যক্ষ বিনিয়োগের ক্ষেত্রে হাতে যথেষ্ট সময় থাকতে হবে। পাশাপাশি থাকতে হবে বিনিয়োগ সংক্রান্ত জ্ঞানও। আর ইক্যুইটি ফান্ড প্রত্যক্ষ বিনিয়োগের সবথেকে ভালো উদাহরণ।
অন্য দিকে, পরোক্ষ বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীকে সরাসরি বা প্রত্যক্ষ ভাবে যুক্ত হতে হয় না । শুধু কোনও কিছু কিনে টাকা বিনিয়োগ করতে হয়। সেই টাকা একটি নির্দিষ্ট সময় কাল ধরে সেখানেই রেখে দিতে হয়। তাই এটি বাই অ্যান্ড হোল্ড ইনভেস্টমেন্টও বলা যায়। যাদের কাছে আর্থিক বিষয় সামলানোর মতো তেমন কোন সময় থাকে না, এই ধরনের বিনিয়োগ তাদেরই করা উচিত। 

এখনকার বাজারে বিভিন্ন ধরনের বিনিয়োগ পাওয়া যায়। সবচেয়ে জনপ্রিয় কয়েকটি সুপরিচিত বিনিয়োগের বিকল্প হল স্টক বা ইক্যুইটি, রিয়েল এস্টেট, ফিক্সড ডিপোজিট, সোনা এবং রিয়েল এস্টেট, মিউচুয়াল ফান্ড, পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড , সরকারী বন্ড, কর্পোরেট বন্ড, এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড, এবং জাতীয় পেনশন স্কিম। 
১. সরাসরি বিনিয়োগ 

সরাসরি বিনিয়োগ পরিকল্পনাগুলি কমিশন এবং বিপণন-সম্পর্কিত খরচগুলিতে দীর্ঘ সময়ের জন্য অতিরিক্ত অর্থ সঞ্চয় করার কাজে আপনাকে সহায়তা করবে। দীর্ঘ সময়ের জন্য সবথেকে ভালো বিনিয়োগের বিকল্প হল স্টক। ইক্যুইটির প্রধান অর্থনৈতিক এবং বাণিজ্যিক প্রভাবের কারণে বিনিয়োগকারী প্রত্যক্ষ ভাবে নিজের সম্পদ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। 

2. মিউচুয়াল ফান্ড
মিউচুয়াল ফান্ড তারল্য এবং পেশাদার ব্যবস্থাপনায় সুবিধা প্রদান করে । যাতে তথ্য সহজলভ্য হওয়ায় বিনিয়োগকারীরা সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম হন। মিউচুয়াল ফান্ডের প্রধান ক্যাটাগরিগুলো হল ডেট এবং হাইব্রিড ফান্ড। বন্ড এবং কাগজপত্রে থাকে ডেট মিউচুয়াল ফান্ড যা ইক্যুইটি ফান্ডের ক্ষেত্রে শেয়ার বাজারের সঙ্গে সম্পর্কিত কোনও স্টক কিংবা ইনস্ট্রুমেন্টেই বিনিয়োগ করা যায়।
মিউচুয়াল ফান্ড ডিলাররা বিভিন্ন মেট্রিক্সের উপর ভিত্তি করে তহবিলের তুলনা করার অনুমতি দেন, যেমন ঝুঁকির স্তর, রিটার্ন এবং মূল্য।   
৩. স্বর্ণ বিনিয়োগ
স্বর্ণ বিনিয়োগ বিকল্পগুলির মধ্যে বিবেচনা করা হয় যে সোনার বিনিয়োগ স্কিমগুলি একটি ব্লক করা সম্পদকে উচ্চ-মূল্যের তরলতায় রূপান্তর করার সুযোগ দেয় আপনাকে। 

৪.পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড 

ভারতে সেরা এবং নিরাপদ বিনিয়োগ মোডগুলির মধ্যে বিবেচিত পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড। পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড হল সবচেয়ে জনপ্রিয় ছোট সঞ্চয় প্রকল্পগুলির মধ্যে একটি। পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড অ্যাকাউন্টধারীরা একটি আর্থিক বছরে 1.5 লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারে।আয়করের প্রভাবের পরিপ্রেক্ষিতে, অ্যাকাউন্টগুলি ছাড়, অব্যাহতি, অব্যাহতি ট্যাক্স বিভাগের জন্যও যোগ্যতা অর্জন করে, যার অর্থ একজন বিনিয়োগকারী তিনটি স্তরেই কর দিতে দায়বদ্ধ থাকে না যেমন বিনিয়োগ, উপার্জন এবং উত্তোলন।
 

ফ্যাক্ট ফাইল থেকে আরও খবর