• রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩
Bengal Links

২৪ ঘণ্টা না কাটতেই ফের নিজাম প্যালেসে সিবিআই-র তলব তৃণমূল কর্মী অনুব্রতের

বেঙ্গল লিংকস

প্রকাশিত: আগস্ট ৭, ২০২২, ০৪:৫৩ পিএম


২৪ ঘণ্টা না কাটতেই ফের নিজাম প্যালেসে সিবিআই-র তলব তৃণমূল কর্মী অনুব্রতের

ফের খবরের শিরোনামে বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। গরু পাচার মামলার চলন্ত তদন্তে সিবিআই তলব করেছে বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের।
বেশ কয়েকবার অসুস্থতার কারণে সিবিআই-র হাজিরা এড়িয়েছেন  অনুব্রত মণ্ডল। এসএসকেএমে ভর্তি হওয়ার পর অনুব্রতের আইনজীবীরা জানিয়েছিলেন, অসুস্থতা সারিয়ে উঠলেই সিবিআই-য়ের তদন্তে প্রয়োজনীয় সব সহযোগিতা তিনি করবেন। অনুব্রত মণ্ডল হাসপাতালে থাকার সময় সিবিআই-এর তরফেও কোনও পদক্ষেপ নেননি। তবে তিনি ছাড়া পাওয়ার ২৪ ঘণ্টা কাটার আগেই ফের নিজাম প্যালেসে তলব পড়ে তৃণমূল নেতার। কয়েকদিন আগেই গরু পাচার মামলায়  বীরভূম সহ কলকাতার মোট ১৩টি জায়গায় তল্লাশি চালিয়ে লক্ষাধিক টাকা, হার্ড ড্রাইভ, পেনড্রাইভ, ফোন ও নথিপত্র উদ্ধার করেছে। তাদের পরীক্ষা করে নতুন কিছু তথ্য জানা যায়। সেই তথ্যের ভিত্তিতে বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতিকে জেরা করতে চান গোয়েন্দারা। বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রতের ঘনিষ্ঠ বন্ধু টুলু মণ্ডল এবং আরও কয়েকজনকেও খোঁজা নেয় সিবিআই। 
১৯৯৮ সালে তৃণমূলের সূচনা থেকেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ নেতা বলে মনে করা হয় অনুব্রতকে। অনেক বিধায়ক, মন্ত্রীদের চেয়েও রাজ্যে বেশি প্রভাবশালী বলে জানা গেছে। এফআইআর -এ জানিয়েছে সিবিআই, যে সতীশ কুমার ডিসেম্বর ২০১৫ থেকে এপ্রিল ২০১৭ পর্যন্ত মালদা জেলায় বিএসএফ-এর  ৩৬ ব্যাটালিয়নের কমান্ড্যান্ট হিসাবে নিযুক্ত ছিলেন। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে, পশ্চিমবঙ্গের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে অবৈধ গবাদি পশুর ব্যবসার অভিযোগে বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের কমান্ড্যান্ট সতীশ কুমার এবং আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছিল যা সরকারি কর্মচারীদের সাথে যুক্ত  হয়েছিল। সেই সময় সীমান্তের ওপারে নিয়ে যাওয়ার আগে বিএসএফ কর্তৃক ২০,০০০এরও বেশি গরু আটক করেছিল।